শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র-রাজনীতির অবসানকল্পে সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য পত্র

শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র-রাজনীতির অবসানকল্পে সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য পত্র: সংবাদপত্রে প্রতিবেদন প্রকাশ করার জন্য সম্পাদক বরাবার পত্র বা চিঠি লিখতে হয়। এরপর সম্পাদক সেই প্রতিবেদন টি তার পত্রিকায় প্রকাশ করে। আপনি যদি পত্রিকার প্রতিনিধি না হন বা স্টাফ রিপোর্টার না হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার প্রতিবেদন সংবাদ পত্রে প্রকাশের জন্য সম্পাদক বরাবর চিঠি পাঠাতে হবে।

শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র-রাজনীতির অবসানকল্পে সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য পত্র

তারিখ : ১২ মার্চ, ২০১০
সম্পাদক,
দৈনিক জনকণ্ঠ
২৪/এ নিউ ইস্কাটন রোড, ঢাকা।

জনাব,

আপনার বহুল প্রচারিত পত্রিকার ‘চিঠিপত্র’ বিভাগে প্রকাশের জন্য শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র রাজনীতির অবসান চাই’ শিরোনামে একটি চিঠি এই সঙ্গে পাঠাচ্ছি। সময়োপযোগী এ-বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে আপনার পত্রিকায় প্রকাশ করে এবং পাঠকের অবাধ মতামত প্রকাশের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে এ মহৎ উদ্দেশ্যকে সার্থক করবেন, আশা রাখি।

বিনীত
‘খ’, ২৭/এ গুলশান, ঢাকা।

শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র রাজনীতির অবসান চাই, চাই শিক্ষার নির্মল পরিবেশ

সভ্যতার ঊষালগ্ন থেকে অদ্যাবধি মহান লক্ষ্য ও আদর্শকে সামনে রেখে যতগুলো সংগঠন আত্মপ্রকাশ করেছে তন্মধ্যে ছাত্রসংগঠন অন্যতম। লেখাপড়ার পাশাপাশি দেশবরেণ্য ছাত্রসমাজ তাদের নিজেদের ও দেশমাতৃকার স্বার্থে সংশ্লিষ্ট শোষক শ্রেণির বিরুদ্ধে যে ভূমিকা পালন করে তাই ছাত্ররাজনীতি। ছাত্র-রাজনীতির মাধ্যমে ছাত্ররা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হয়ে ওঠে। দুঃখজনক হলেও সত্য যে, বহুমুখী কারণে ঐতিহ্যবাহী ছাত্র-রাজনীতি আজ বিতর্কের সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে।


🔆🔆 আরও দেখুন: চাকরি থেকে অব্যাহতির জন্য আবেদন (নমুনা উদাহরণ সহ)
🔆🔆 আরও দেখুন: চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম – নমুনা ও পিডিএফ সহ
🔆🔆 আরও দেখুন: চিঠি লেখার নিয়ম। পত্র লেখার সঠিক নিয়ম জানুন


আজকাল ছাত্র-রাজনীতি অনেকাংশে অসুস্থ রাজনীতিতেই পরিণত হয়েছে। ছাত্ররাজনীতিতে প্রবেশ করেছে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মারামারি, কাটাকাটি ইত্যাদি। ছাত্র-রাজনীতির এহেন পরিস্থিতি দেশ ও জাতিকে ক্রমান্বয়ে নিয়ে যাচ্ছে ধ্বংসের অতল গহ্বরে। সন্ত্রাসের কারণে প্রতি বছর অনেক ছাত্রের তাজা প্রাণ ঝরে যাচ্ছে, আবার অনেকে চিরদিনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোকে বিভিন্ন সংগঠনের ছাত্ররা মিনি ক্যান্টনমেন্টে পরিণত করেছে, শিক্ষাঙ্গনকে বানিয়েছে রণাঙ্গন।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সমাজের অগ্রসর অংশ হিসেবে ছাত্রসমাজকেই তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সাধনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করায় সর্বাধিক সচেষ্ট। ক্ষমতা দখলের লক্ষ্যে তারা ছাত্রসমাজকে তাদের ক্রীড়নকে পরিণত করেছে। ফলে ছাত্রসমাজ এখন দেশগঠনমূলক আদর্শবাদী রাজনীতির পথ থেকে বিচ্যুত হচ্ছে। এসব দিক থেকে বিবেচনা করে ছাত্র-রাজনীতি নিয়ে সম্প্রতি বিতর্কেরও সৃষ্টি হয়েছে।

সুতরাং দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে এবং শিক্ষার মান রক্ষার্থে, শিক্ষাঙ্গনে সুশৃঙ্খল পরিবেশ বজায় রাখতে শিক্ষাঙ্গনে ছাত্র-রাজনীতি বন্ধ করে দেয়া উচিত।

নিবেদক
‘খ’
২৭/এ গুলশান, ঢাকা।

আশা করছি আজকের আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লেগেছে। এর পরও কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে আমাদের কমেন্টে বলতে পারেন। আমরা দ্রুততার সহিত আপনার মূল্যবান কমেন্ট এর রিপলে করার চেষ্টা করবো। ভালো থাকবেন সবাই, ধন্যবাদ।

About মেরাজুল ইসলাম

আমি মেরাজুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী পাশাপাশি একজন ব্লগার। এডুকেশন এর প্রতি ভালোবাসাও অনলাইল শিক্ষার পরিসর বাড়ানোর জন্য এডুকেশন ব্লগের পথচলা। ব্লগিং এর পাশাপাশি আমি ওয়েবসাইট ডিজাইন, কন্টেন্ট রাইটিং, কাস্টমাইজ সহ ওয়েব রিলেটেড সকল কাজ করি।

Check Also

নেকলেস গল্পের প্রশ্ন ও উত্তর

আপনি কি নেকলেস গল্পের প্রশ্ন ও উত্তর খুজতেছেন? আজকের আর্টিকেল টি আপনাদের জন্য। আজকের আর্টিকেলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *